April 23, 2018

খালেদা জিয়াকে নিঃশেষ করাই সরকারের উদ্দেশ্য

image-29762-1523430153বাংলানিউজ ডেস্ক : খালেদা জিয়াকে তিলে তিলে নিঃশেষ করাই সরকারের উদ্দেশ্য বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, আইনগতভাবে বেগম জিয়া ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের সেবা পাওয়ার অধিকারী অথচ সে সুযোগ তাকে দেওয়া হচ্ছে না। এখানেই সরকারের উদ্দেশ্যে পরিস্কার হয়ে যায় যে, তাকে তিলে তিলে নিঃশেষ করার ষড়যন্ত্র রয়েছে। বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মঙ্গলবার বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষায় গঠিত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চার সদস্যের সরকারি মেডিকেল বোর্ডের প্রধান অধ্যাপক ডা. মো. শামছুজ্জামান বলেছেন, ‘বেগম খালেদা জিয়ার রক্ত পরীক্ষা ও এক্সরে রিপোর্ট আমরা পেয়েছি। তার এক্স-রে রিপোর্টগুলোতে দেখা যাচ্ছে ঘাড়ে ও কোমরের হাড়ে সমস্যা আছে। তার ফিজিওথেরাপীর প্রয়োজন। তার দুটো হাঁটুই প্রতিস্থাপন করা। সেই জায়গাতেও কিছু সমস্যা দেখা দিয়েছে।’

রুহুল কবির রিজভী বলেন, আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞানের জগতে বেগম খালেদা জিয়াকে যে এক্সরে ও রক্ত পরীক্ষা করানো হয়েছে তা মামুলি ব্যাপার মাত্র। তাকে এমআরআইসহ আরও আধুনিক পরীক্ষা করলে বোঝা যেত তার প্রকৃত স্বাস্থ্যগত অবস্থা কি। এ অবস্থায় একজন জনপ্রিয় রাজনৈতিক নেতার ওপর এহেন নির্যাতন এবং নির্দয় ব্যবহার শুধুমাত্র সরকার প্রধানের প্রতিহিংসা চরিতার্থ করা ছাড়া অন্য কোন কারণ নেই। কারণ জামিন পাওয়ার পরও তার জামিন আটকে দেওয়া হয়েছে সরকার প্রধানের নির্দেশেই।

গত দুদিন আগে রাতে ঢাবির হলে হলে ঢুকে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বেছে বেছে নির্যাতন করেছে ছাত্রলীগ উল্লেখ করেন তিনি। বলেন, গত রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুফিয়া কামাল হলে কোটা সংস্কার আন্দোলনে যোগদানকারী ছাত্রীদের ওপর হামলা চালিয়েছে হল ছাত্রলীগের নেত্রীরা। মোর্শেদা নামের এক ছাত্রীর পায়ের রগ কেটে দেয়া হয়েছে বলে গণমাধ্যমে খবর এসেছে। এই ঘটনার সাথে ছাত্রলীগ হল শাখার সভানেত্রী এই ঘটনার সাথে জড়িত। বই-খাতা-কলম ছুঁড়ে ফেলে ছাত্রীলীগ যে ক্রমান্বয়ে কসাইয়ে পরিণত হয়েছে তার প্রমান এই রক্তাক্ত ঘটনা।

সরকারের মন্ত্রীদের লাগামহীন বক্তব্যের কারণে শিক্ষার্থীরা আরও বেশী ক্ষুদ্ধ বিক্ষুদ্ধ হয়ে পড়েছে মন্তব্য করে রিজভী বলেন, এই ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্তৃপক্ষ সরকারের তল্পিবাহক ছাড়া কোন আদর্শ শিক্ষকের ভূমিকা পালন করেননি। সরকারের কাছে নিজেদের বিবেককে অঞ্জলি দিয়েছেন। কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর সরকারী বাহিনী ও ছাত্রলীগের যে তাণ্ডবলীলা চলছে সেটির তীব্র ধিক্কার ও নিন্দা জানান তিনি।

সর্বশেষ সংবাদ