February 20, 2018

বাহুবলে স্কুল ছাত্রকে লিঙ্গ কেটে হত্যার দায় স্বীকার

28000568_1827982547234788_1066545814_n-768x576আজিজুল ইসলাম সজীব, হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের বাহুবলে বোনকে বিয়ে করার কথা বলা ও বোনের সাথে প্রেমের সম্পর্ক করার জের ধরে চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্রকে প্রথমে শ্বাসরুদ্ধ পরে লিঙ্গ কেটে হত্যার দায় স্বীকার করেছে শামীম মিয়া (১৮) নামের এক যুবক। ১৬৪ ধারায় হত্যাকান্ডের লোমহর্ষক বর্ণনা দিয়েছে ওই যুবক।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে এক প্রেস বিফিংয়ে হবিগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার মো: নাজিম উদ্দিন (মিডিয়া) বলেন, বোনকে বিয়ে করার কথা বলা ও বোনের সাথে প্রেমের সম্পর্ক করার জের ধরেই এই হত্যাকান্ড। গত শনিবার বিকালে উপজেলার বানিয়াগাও মাদ্রসায় তাফসির মাহফিল শুনতে যায় নিহত স্কুল ছাত্র হাবিব। কৌশলে হাবিবকে তাফসির মাহফিল থেকে বানিয়াগাও এলাকার ধানী জমির মধ্যে মাঠে নিয়ে আসে। রাত আনুমানিক ৯টার দিকে তিনজন মিলে ঝাপটে ধরে প্রথমে শ্বাসরোধ করে স্কুল ছাত্র হাবিবকে। পরে শামীম তাকে উলঙ্গ করে ব্লেইড দিয়ে তার লিঙ্গ কেটে দেয়। তার মৃত্যু নিশ্চিত করে তারা সেখান থেকে বাড়িতে চলে যায়। তিনি আরো জানান, রাতে শামীম নিজে গিয়ে তারসহযোগি জুয়েল ও শাহজাহানের বাড়িতে তাদের পৌছে দিয়ে আসে। শামীম প্রায় এক মাস যাবৎ তাকে হত্যার পরিকল্পনা করে আসছিল বলেও জানান ওই পুলিশ কর্মকর্তা।
পরদিন রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় বানিয়াগাও বন্ধের ধানী জমির মাঠ থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
ঘটনার পরপরই ঘাতক শামীমসহ পুলিশ ৫ শিশুকে আটক করে। তাদের দেয়া তথ্যের সূত্র ধরে তদন্তে অগ্রসর হয় পুলিশ। পরে শামীমকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্ধি গ্রহন করা হয়।
গত সোমবার রাত ৮টায় জবানবন্দি দিয়েছে ঘাতক। হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলামের আদালতে জবানবন্দি গ্রহণ শেষে তাকে কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।
ঘাতক শামীমের দেয়া স্বীকারোক্তিতে উপজেলার খুজেরগাও গ্রামের জৈন উল্লার ছেলে জুয়েল মিয়া (১১) ও একই গ্রামের ইউনুছ মিয়ার ছেলে শাহজাহান মিয়া (১২) নামের আরো দুই বন্ধুকে সোমবার দিবাগত রাতে তাদের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ঘাতক শামীম উপজেলার ভাদেশ্বর ইউনিয়নের খুজারগাও গ্রামের আমির আলীর ছেলে।
নিহত স্কুল ছাত্র উপজেলার খোজারগাও গ্রামের আব্দুল হান্নানের ছেলে হাবিব মিয়া (১২)। সে স্থানীয় বিহারীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্র।
বাহুবল মডেল থানায় প্রেস ব্রিফিং করছেন সহকারী পুলিশ সুপার নাজিম উদ্দিন (মিডিয়া), উপস্থিত ছিলেন থানার ওসি মো: মাসুক আলী, ওসি (তদন্ত)দস্তগীর আহমদ।

সর্বশেষ সংবাদ