December 14, 2017

রাজনগরে যৌতুকের টাকা না দেওয়ায় বিয়ের সপ্ন ভঙ্গ! অভিমান করে যুবতীর আত্মহত্যা

raznajor. premnagor. ded body rayenaমশাহিদ আহমদ : রাজনগর উপজেলায় বিয়ের সপ্ন ভঙ্গ হওয়ায় অভিমান করে দিনমজুর গফ্ফার মিয়ার মেয়ে রেহেনা বেগম (১৯) নামের এক যুবতী ঘরের তীরের সাথে ওড়না পেছিয়ে আত্মহত্যা করেছে।  ঘটনাটি ঘটেছে গত ১৬ নভেম্বর বিকাল ৫টায় ৭নং কামারচাক ইউনিয়নের খাস প্রেমনগর গ্রামে। এ ঘটনায় সদর হাসপাতালে মৌলভীবাজার মডেল থানার পুলিশ লাশের সুরতহাল রির্পোট তৈরি করেছে। আজ ১৭ নভেম্বর মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে লাশ ময়না তদন্ত শেষে তাকে ২.৩০ মিঃ সময় পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। জানা গেছে- আগামী ২৭ নভেম্বর মৌলভীবাজার সদর উপজেলার চেরাগ বখত এর পুত্র রিপন বখত (২৮) এর সাথে বিয়ের দিন তারিখ ধার্য ছিল। বিয়েতে আন্তীয়-স্বজনদের দাওয়াত, খাবারের জন্য গরু-ছাগল, কাঠ-ফালৎসহ যাবতীয় মালামাল ক্রয় সম্পন্ন করা হয়।  গত ১৫ নভেম্বর রেহেনার শশুরালয় থেকে মেয়ের পরিবারের লোকজনদের ফোন দিয়ে জানানো হয় এ বিয়ে হবেনা। আজ ১৬ নভেম্বর মেয়ের বাড়ীর লোকজন  বিষয়টি যাচাই বাচাই করার জন্য চেরাগ বখত এর বাড়ীতে গিয়ে বিয়েটি অকারনে ভেঙ্গে না দেওয়ার অনুরুদ জানালেও তা পুনরায় চেরাগ বখত ২লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করেন এবং না দিলে এ বিয়ে হবেনা বলে সাফ জানিয়ে দেন। এ ঘটনায় রেহেনা মর্মাহত হয়ে  পরিবারের অজান্তে শশুর বাড়ীর লোকজনদের উপর অভিমান করে আন্তঃহত্যা করে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিয়ের উকিল শাহনাজ বেগম জানান- বিয়ের সকল প্রস্তুতি শেষে ছেলের বাবা চেরাগ বখত ২লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করেন। মেয়ের দিন মজুর পিতার পক্ষে দাবীকৃত এ টাকা দেওয়া অসম্ভব ছিল। মেয়েটির বিয়ে ভেঙ্গে যাওয়ায় ও ছেলের পিতার দাবীকৃত টাকা দিতে না পারায় সে আন্তঃহত্যা করেছে।

সর্বশেষ সংবাদ