January 23, 2018

খুলনায় গাঁজাসহ শ্রমিকলীগ নেতা গ্রেপ্তার অতঃপর চাপের মুখে ছেড়ে দিল পুলিশ

gaja_25785স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে : খুলনা বিভাগীয় ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি শ্রমিকলীগ নেতা আবুল হোসেন কার্ফু, সদস্য শামীম খান ও মো. ইউনুসকে মাদকসহ গ্রেপ্তারের পৌনে এক ঘণ্টা পর ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। শ্রমিক নেতাদের মুক্তির দাবিতে মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর দৌলতপুর ও রেলিগেট এলাকায় প্রায় ঘণ্টাব্যাপী সড়ক অবরোধ করে লাঠি হাতে যানবাহন ধাওয়া করে রাস্তায় আগুন জ্বালিয়ে দেয় শ্রমিক সংগঠনের কর্মীরা। তবে মাদকসহ গ্রেপ্তারের পর ছেড়ে দেয়া উচিত নয় বলে জানিয়েছেন খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি) কমিশনার।

দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ুন কবীর জানান, দুপুর দেড়টা থেকে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী খুলনা-যশোর মহাসড়কের রেলিগেট মোড়ে শ্রমিকরা অবরোধ করে রাখে। তবে তিনি যানবাহন ভাঙচুরের কোনো অভিযোগ পাননি বলে দাবি করেন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তিন-চারটি ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক ও একজন সাংবাদিকের মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে শ্রমিকরা।
কেএমপির (ডিবি) এডিসি কামরুল ইসলাম বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নগরীর গোয়ালখালী এলাকার বিজিবি ক্যাম্পের পার্শ্ববর্তী একটি বাড়ি থেকে মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে খুলনা বিভাগীয় ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি আবুল হোসেন কার্ফু, সদস্য শামীম খান ও মো. ইউনুসকে গ্রেপ্তার করা হয়। খবর ছিল তাদের নিকট ইয়াবা ও গাঁজা আছে। তল্লাশিকালে ৪/৫টি সিগারেটের মধ্যে গাঁজা ভর্তিসহ ২০ গ্রাম গাঁজা পাওয়া যায়।কিন্তু শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ ও নেতাদের আন্দোলনের চাপে পৌনে ১ ঘণ্টা পর তাদের ছেড়ে দিতে বাধ্য হই।’
কেএমপি কমিশনার হুমায়ুন কবির বলেন, মাদকসহ কাউকে গ্রেপ্তারের পর ছেড়ে দেয়ার কথা নয়। কারণ মাদকের বিষয়ে কোনো ছাড় নেই।

সর্বশেষ সংবাদ