February 20, 2018

একটি দোয়ায় দুঃখ ও ঋণ থেকে চির মুক্তি

lBRACAHবাংলানিউজ ডেস্ক : সুখ-দুঃখ নিয়েই মানুষের জীবন। জীবনে কোন হতাশা নেই এমন মানুষও পাওয়া ভার। তাছাড়া প্রতিটি মানুষই কম বেশি ঋণগ্রস্থ। এই দুঃখ, হতাশা ও ঋণ থেকে মুক্তি পেতে চান সবাই। এ জন্য প্রতিটি মুসলমান ইসলামী জিন্দেগীর সাথে কিছু আমলের ব্যবস্থা করেছে ইসলাস। আজ আমরা এমন একটি আমলের বিষয়ে উল্লেখ করবো, যা আপনাকে এই তিনটি জিনিস থেকে মুক্তি দেবে।

প্রখ্যাত সাহাবী হযরত আবু সাঈদ খুদরী(রাঃ) বলেন, একদিন রাসুলে করীম(সাঃ) মসজিদে আগমন করলেন। সেখানে তখন আনসারী আবু উমামা (রাঃ) বসা ছিলেন। তিনি বললেন, হে আবু উমামা! অসময়ে মসজিদে বসে কি করছ?

আবু উমামা আরয করলেন, ইয়া রাসুলুল্লাহ! নানা ধরনের দুঃখ কষ্টে পতিত আছি। মানুষের ঋন আমার ঘাড়ে চেপে রয়েছে। রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বললেন, আমি তোমাকে কয়েকটি বাক্য বলে দিচ্ছি। এগুলো পাঠ করলে আল্লাহ তাআ’লা তোমার দুঃখ-দুর্দশা দূর করবেন এবং ঋণ পরিশধের ব্যবস্থা করবেন।

তুমি সকাল-সন্ধ্যা এ দোয়া পড়বেঃ “আল্লাহুম্মা ইন্নী আউজুবিকা মিনাল হাম্মি ওয়াল হুজনি ওয়া আউজুবিকা মিনাল আ’যজি ওয়াল কাসালি ওয়া আউজুবিকা মিনাল যুবনি ওয়াল বুখলি ওয়াআউজুবিকা মিন গলাবাতিদ্দাইনি ওয়াক্বহরির রিযাল”।

অর্থাৎ, “হে আল্লাহ! আমি আপনার আশ্রয় প্রার্থনা করি দুশ্চিন্তা থেকে ও দুর্ভাবনা থেকে। কাপুরুষতা ও অলসতা থেকে আমি আপনার আশ্রয় প্রর্থনা করি। আমি আপনার আশ্রয় প্রার্থনা করি ভীরুতা ও কৃপপনতা থেকে এবং আমি আপনার আশ্রয় প্রার্থনা করি ঋনের ভার এবং তজ্জনিত মানুষের চাপ থেকে”।

হষরত আবু উমামা (রাঃ) বলেন, আমি মাত্র কয়েকদিন এ বাক্যগুলি পাঠ করলাম, আল্লাহ তায়া’লা এর বরকতে আমার চিন্তা দূর করে দিলেন এবং ঋনও পরিশোধ করে দিলেন(হিসনে হাসীন)।

সর্বশেষ সংবাদ