February 20, 2018

কুলাউড়া-জুড়ী ও বড়লেখায় দুই বছরে ৯০ জনের আত্মহত্যা

ffffবিশেষ প্রতিনিধি : দীর্ঘ হচ্ছে আত্মহত্যার মিছিল।  আত্মহত্যার মিছিলে কেবল বাড়ছে লাশের সংখ্যা। গত দুই বছরে কুলাউড়া-জুড়ী এবং বড়লেখা উপজেলায় ১৬৩ জন মৃতের মধ্যে ফাঁসিতে এবং বিষপানে ৯০ জন আত্মহত্যা করেছে। এই উপজেলাগুলোতে আত্মহত্যার সংখ্যা অনেক বেশি বলে মনে করছেন মনোবিজ্ঞানীরা। এদিকে আত্মহত্যা প্রতিরোধে চা বাগান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও ইমামদেরকে নিয়ে বিভিন্ন পদক্ষেপ হাতে নিয়েছেন কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আবু ইউছুফ। জানা যায়, গত দুই বছরে (জুলাই-২০১৫/জুন-২০১৭) কুলাউড়া-জুড়ী এবং বড়লেখা উপজেলায় ১৬৩ জন মৃত্যের মধ্যে ফাঁসিতে এবং বিষপানে ৯০ জন আত্মহত্যা করেছে। এর মধ্যে চা-বাগানগুলোতে ১৯জন রয়েছে। কুলাউড়া থানায় ৮৪ জন মৃতের মধ্যে আত্মহত্যা করেছেন ২৮জন এবং পানিতে ডুবে মারা গেছে ৩০ জন। বড়লেখা থানায় ৪৮জন মৃতের মধ্যে আত্মহত্যা করেছে ২৪ জন এবং পানিতে ডুবে মারা গেছে ৯ জন, জুড়ীতে মৃত ৩১ জনের মধ্যে আত্মহত্যা করেছেন ২৫ জন (৮০%)। শুধুমাত্র ফুলতলা চা বাগানেই আত্মহত্যা করেছে ৩ জন। আত্মহত্যার কারণ সম্পর্কে কুলাউড়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মনোবিজ্ঞানী সৌম্য প্রদীপ ভট্টাচার্য্য বলেন, সামজিক অস্থিরতা আত্মহত্যার প্রধান কারণ। এছাড়া পারিবারিক বন্ধনের অভাব, মাদক, হতাশা, পারস্পরিক  সহমর্মিতার অভাব এবং দুঃখ ও হতাশা প্রকাশের সুযোগ না পেয়ে মানুষ আত্মহত্যা করে। কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আবু ইউছুফ বলেন, গত ৬ মাসে ১০/১২টি আত্মহত্যার ঘটনাস্থলে গিয়েছি। কিন্তু একটিরও যথাযথ কারণ খুঁজে পাইনি। আত্মহত্যা প্রতিরোধের বিভিন্ন মাধ্যম খুঁজতে শুরু করি। গত ১৩ জুন প্রথমে কুলাউড়া সার্কেলের আওতাধীন কুলাউড়া, বড়লেখা ও জুড়ী থানার সকল জামে মসজিদের ইমামদেরকে চিঠি পাঠাই। চা বাগানের শ্রমিকের আত্মহত্যার যথাযথ কারণ খুঁজে না পেয়ে এখন চা বাগানের ম্যানেজারদের কাছে চিঠি পাঠিয়েছি। গত দুই বছরে আত্মহত্যাকারী ৯০ জনের পেশা বিশ্নেষণ করে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী থাকায় স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় চিঠি পাঠানো কার্যক্রম হাতে নিয়েছি। কুলাউড়া ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে অধ্যক্ষ সৌম্য প্রদীপ ভট্টাচার্য্য এবং ঝিমাই চা বাগানের সহকারী ম্যানেজার মোঃ মনির হোসেনের হাতে চিঠি দিয়েছি। সকল চা বাগানের ম্যানেজার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান এবং ইমামদের কাছেও ইতোমধ্যে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ