September 24, 2017

ফেসবুকে উস্কানিমুলক মন্তব্য পোষ্টের অভিযোগ বড়লেখায় ফার্মেসীতে সন্ত্রাসী হামলা ও ভাংচুর

Barlekha-Pic-13-2বড়লেখা প্রতিনিধি : বড়লেখার দাসেরবাজারে চৌধুরী ফার্মেসিতে বুধবার দুপুরে ১০-১২ জন যুবক সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করেছে। তবে কি কারণে হামলা হয়েছে তা কেউ নিশ্চিত না করলেও অনেকে বলছেন ফার্মেসী মালিক রূপম দাস ফেসবুকে কয়েকটি উস্কানিমুলক ও বিতর্কিত মন্তব্য পোষ্ট করেছেন। এ কারণে ক্ষুব্দ হয়ে যুবকরা হামলার এ ঘটনা ঘটিয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছে।
পুলিশ, ফার্মেসি কর্মচারি ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, বুধবার দুপুর ১টার দিকে ১০/১২ জনের সঙ্গবদ্ধ যুবকরা ফার্মেসীতে গিয়ে ফার্মেসী মালিক পল্লী চিকিৎসক রূপম দাসের খোঁজ করে। তিনি ফার্মেসিতে নেই জেনেই তারা রড, হাতুড়ি ও লাঠি দিয়ে ফার্মেসিতে এলোপাতাড়ি হামলা চালিয়ে আসবাবপত্রসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র ভাঙচুর করে চলে যায়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান হামালার সময় স্থানীয় ইউনিয়ন যুবলীগের এক শীর্ষ নেতা উপস্থিত ছিলেন। তবে তিনি হামলাকারীদের কোন ধরনের নিবৃত করার চেষ্টা করেননি। স্থানীয়ভাবে খবর পাওয়ার পরই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।


ধারণা করা হচ্ছে, ৩-৪দিন আগে রূপম দাসের সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক আইডি থেকে দুটি বিতর্কিত পোস্টের লিংক দেয়া হয়। রূপম দাসের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি। তার ফামের্সী কর্মচারী শ্রীবাস দাস জানান, রূপম দাসের আইডি কে বা কারা হ্যাক করেছে। বিতর্কিত লিংকের বিষয়টি তিনি জানতেন না। তিনদিন পর আইডি উদ্ধার করে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে তার আইডি ব্যবহার করে কেউ কোনো প্রকার খারাপ পোস্ট দিয়ে থাকলে এরজন্য তিনি ক্ষমা চান। দুঃখ প্রকাশ করেন। এরপরও বিভিন্ন আইডি থেকে তাকে বিভিন্নভাবে হুমকি-ধমকি দেয়া হয়েছে।

থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ সহিদুর রহমান হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘ফেসবুকের বিতর্কিত পোস্টের লিংক দেয়াই ফার্মেসীতে হামলার নেপথ্য কারণ হতে পারে। এ ঘটনায় কেউ মুখ খুলছে না। মামলা দেয়নি। তবে পুলিশ ঘটনার রহস্য উদঘাটনে তদন্ত করছে।’

সর্বশেষ সংবাদ