September 19, 2017

কুলাউড়ায় শিশু নির্যাতনের ভিডিও ভূয়া (ভিডিওসহ)

2222বিশেষ প্রতিনিধি : গ্রামের রাস্তায় ৫-৭ বছর বয়সী এক শিশুকে সবার সামনে প্রচণ্ড মারধর করছে এক তরুণ। আরেকজন ওই শিশুটির গলা চেপে ধরে রেখেছে, যাতে সে নড়তে না পারে। ‘দাদা, দাদা’ বলে শিশুটি তীব্র চিৎকার করছে, কিন্তু কিছুতেই মন গলছে না পাষণ্ডদের। ওই তরুণ অনবরত মেরেই যাচ্ছে শিশুটিকে। এক পর্যায়ে শিশুটিকে উপরে তুলে আছাড় দেন তিনি। এতেই ক্ষান্ত না হয়ে মাটিতে শুইয়ে শিশুটিকে চেপেও ধরেন ওই ব্যক্তি!

কুলাউড়া উপজেলার হাজিপুর ইউনিয়নের হাজিপুর গ্রামের আব্দুল আলী নামের এক শিশুকে নির্যাতনের চাউর হওয়া এই ভিডিওটি ভূয়া। বিষয়টি আব্দুল আলীর পরিবার ও পুলিশ প্রশাসন নিশ্চিত করেছেন। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে শিশুটিকে নির্যাতনের ভিডিও ছড়িয়ে পড়ছে। ভিডিওটিতে পৈশাচিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে একটি শিশু।

১ আগষ্ট মঙ্গলবার সরেজমিনে হাজিপুর গ্রামে গেলে জানা যায়, হাজিপুর ইউনিয়নের আব্দুল খালিকের ছেলে পারভেজ মিয়ার ট্রলি দীর্ঘ দুই বছর যাবৎ চালিয়ে আসছিল। সে ২৫ জুলাই মঙ্গলবার নির্যাতনের শিকার হয়। কিন্তু ফেসবুকের ভিডিওটি কুলাউড়া উপজেলার আব্দুল আলী নির্যাতনের ভিডিও নয়। আব্দুল আলী শিশু নন ২২ বৎসরের যুবক। ইতিমধ্যে মৌলভীবাজার জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সারওয়ার আহমদ, কুলাউড়া সার্কেল পুলিশ সুপার আবু ইউসুফ ও কুলাউড়া থানার ওসি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। মৌলভীবাজার জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সারওয়ার আহমদ বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এখানের যে ঘটনাটি সেটা গ্যারেজের আর ভিডিওর যে ঘটনা সেটা কাচা রাস্তায়। এছাড়াও ভিডিওর লোকদের পোশাকের সাথে এখানের লোকদের কোন মিল নেই।

সর্বশেষ সংবাদ